নাসিক নির্বাচনে প্রশাসনের বিরুদ্ধে তৈমূরের অভিযোগ

মঙ্গলবার ১১ জানুয়ারী ২০২২ ১২:৪৯


নিজস্ব প্রতিবেদক:
নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনকে (নাসিক) কেন্দ্র করে জেলা শহরজুড়ে এখন ভোটের উত্তাপ বাড়ছে। প্রার্থী-সমর্থকদের মধ্যে বিরাজ করছে টান টান উত্তেজনা। ইতোমধ্যে আজ সকালে স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার সংবাদ সম্মেলন করে প্রশাসনের বিরুদ্ধে দলীয় কর্মীদের গ্রেপ্তার, ভয়ভীতি ও হয়রানির অভিযোগ তুলেছেন।

নাসিক নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা মার্কার প্রার্থী হলেন ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী। তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হলেন বিএনপি থেকে বহিষ্কৃত স্বতন্ত্র প্রার্থী তৈমূর আলম খন্দকার। তাদের পাল্টাপাল্টি নির্বাচনী প্রচারণায় ইতোমধ্যে সরগরম হয়ে উঠেছে নারায়ণগঞ্জ।

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) সকাল ১০টার দিকে সংবাদ সম্মলেন করে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী তৈমূর আলম বলেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচনকে প্রভাবিত করছে, পুলিশ তার নেতাকর্মীকে হয়রানি করছে। সাদা পোশাকে নির্বাচনী কমিটির কর্মীদের বাসায় তল্লাশি করা হচ্ছে।
এ বিষয়ে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী সাংবাদিকদের বলেন, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা কোনো প্রার্থীর সমর্থকদের হুমকি দিচ্ছে না। তারা স্বতঃস্ফূর্তভাবে প্রচারণা করছে। আইভীর কোনো কর্মী তৈমূর আলম খন্দকারের সমর্থকদের হয়রানি করছে না।

আজ সকাল থেকে ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী খানপুর এলাকার বিভিন্ন ওয়ার্ডে প্রচারণা করছেন। আর তৈমূর আলম বন্দর ঘাট এলাকায় জনসংযোগ করছেন।

অপরদিকে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচন উপলক্ষে জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।

নির্বাচন কমিশনের আইন শাখার সহকারী সচিব স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনটি মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) সকালে জারি করে ইসি।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, স্থানীয় সরকার (সিটি করপোরেশন) নির্বাচন বিধিমালা, ২০১০ এর বিধি ৮৬-তে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে নির্বাচন কমিশন, আইন ও বিচার বিভাগ, আইন ও বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের সঙ্গে পরামর্শক্রমে ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। পেনাল কোডের অধীনে তারা মামলা নিয়ে সংক্ষিপ্ত বিচার কাজ পরিচালনা করতে পারবেন। এ লক্ষ্যে নারায়ণগঞ্জ সিটি ভোট সুষ্ঠু করতে ১৪ জন্য জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

এমএসি/আরএইচ