কুয়াকাটায় আবাসিক হোটেল থেকে পতিতাসহ আটক ৪ 

মঙ্গলবার ১০ মে ২০২২ ১১:২৪


মহিপুর থানা প্রতিনিধি ::
পটুয়াখালীর মহিপুর থানা পুলিশের অভিযানে কুয়াকাটার এ.আর খান নামে একটি আবাসিক হোটেল থেকে পতিতা সহ ৪ জনকে আটক করেছে মহিপুর থানা পুলিশ। 

গতকাল সোমবার (৯ মে) রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) খোন্দকার মোঃ আবুল খায়ের,  এস আই মান্নান, সাইদুল, রাসেল ও এ এস আই জাহাঙ্গীরসহ সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে কুয়াকাটার এ.আর খান আবাসিক হোটেলে অভিযান পরিচালনা করেন।

এসময় ৫ বছরের জন্য ওই হোটেলের চুক্তিবদ্ধ মালিক বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের ২ নং ওয়ার্ডের কাউনিয়ার মৃত হাতেম আলী’র ছেলে ফজলুর করিম ফারুক, খুলনার দীঘলিয়া ইউনিয়নের দেয়ারা গ্রামের আলাউদ্দিন সর্দারের ছেলে মাহমুদ ফরাজীসহ বরগুনার ২ যুবতীকে আটক করা হয়।

জানা গেছে, আবাসিকের আড়ালে দীর্ঘদিন ধরে পতিতা ব্যবসা করে আসছিলেন এ.আর খান হোটেলের চুক্তিবদ্ধ মালিক ফজলুর করিম ফারুক। পরে মহিপুর থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে ওই মালিক, ১ যুবক ও ২ পতিতাসহ মোট ৪ জনকে আটক করে।

পুলিশের এ অভিযান কে স্বাগতম জানিয়ে এলাকাবাসীরা অভিযোগ করে বলেন কুয়াকাটায় এই হোটেল সহ  অধিকাংশ হোটেলেই প্রশাসনের চোখ এড়িয়ে দীর্ঘদিন ধরে   চলছে দেহ এবং মাদক ব্যবসা এতে করে যেমন কুয়াকাটার সুনাম ক্ষুন্ন হচ্ছে অপরদিকে এলাকার যুবসমাজ ধ্বংসের পথে ধাবিত হচ্ছে।

এ বিষয়ে মহিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ খোন্দকার মোঃ আবুল খায়ের বলেন আটককৃতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে  । এসময় তিনি আরো বলেন  কুয়াকাটা তথা মহিপুর থানা এলাকার পতিতাবৃত্তি এবং মাদক নির্মুলে কাজ করে যাচ্ছে মহিপুর থানা পুলিশ এবং এ ধরনের অপরাধের সাথে জড়িত  কাউকে ছাড় দেওয়া হচ্ছেনা।  এ ব্যাপারে  থানা পুলিশের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এমএসি/আরএইচ